29 C
Dhaka
মঙ্গলবার, সেপ্টেম্বর ১৪, ২০২১

গরুর মাংসের মুখরোচক ৫টি রেসিপি

যা পড়তে পারেন

:: জারিন তাসনিম আহমেদ ::

ভাত, পোলাও, খিচুড়ি, রুটি বা পরোটার সঙ্গে পরিবেশন করতে দেয়া হল গরুর মাংসের মুখরোচক ৫টি রেসিপি।

কালা ভুনা

উপকরণঃ

১ কেজি হাড়সহ মাঝারি গরুর মাংস

২ টি মাঝারি পেঁয়াজ কুচি

২ টেবিল চামচ আদা রসুন বাটা

১ চা চামচ জিরা গুড়া

১ চা চামচ ধনিয়া গুড়া

১ চা চামচ হলুদ গুড়া

১ চা চামচ গোলমরিচ গুড়া

১ টেবিল চামচ মরিচ গুড়া

১ টেবিল চামচ টক দই

২ টি তেজপাতা

২ টি দারচিনি

৫ টি এলাচ

৩ টি কালো এলাচ

হাফ চা চামচ জায়ফল ও জয়েত্রির গুড়া

হাফ চা চামচ রাঁধুনি গুড়া

হাফ চা চামচ ভাঁজা জিরা গুড়া

৩ টা আস্ত শুকনো মরিচ

২ কাপ সরিষার তেল

স্বাদ মত লবণ

প্রণালিঃ

চুলার মধ্যে ১ টি পাত্রে ১ কেজি হাড় সহ মাঝারি গরুর মাংস ১ টি  মাঝারি পেঁয়াজ কুচি, ২ টেবিল চামচ আদা রসুন বাটা,১ চা চামচ জিরা গুড়া,১ চা চামচ ধনিয়া গুড়া,১ চা চামচ হলুদ গুড়া,১ চা চামচ গোলমরিচ গুড়া,১ টেবিল চামচ মরিচ গুড়া,২ টি তেজপাতা,২ টি দারচিনি,৫ টি এলাচ,৩ টি কালো এলাচ ১ টেবিল চামচ টক দই, স্বাদ মত লবণ এবং ১ কাপ সরিষার তেল দিয়ে ভালভাবে মাখিয়ে ১ ঘণ্টা রেখে দিতে হবে। এরপর চুলায় মাংস ভালভাবে কষাতে হবে যতক্ষণ না পর্যন্ত মাংস সিদ্ধ হয়ে তেলের উপর না আসে। মাঝে মাঝে নেড়ে দিতে হবে যেন মসলা লেগে না যায়। মাংস সিদ্ধর জন্য ১ কাপ পানি দিতে হবে এতে করে মসলাও তলায় লাগবেনা। মাংস সিদ্ধ হয়ে তেলের উপরে আসলে হাফ চা চামচ জায়ফল ও জয়ত্রির গুড়া, হাফ চা চামচ রাঁধুনি গুড়া এবং হাফ চা চামচ ভাঁজা জিরা গুড়া দিয়ে ভালভাবে উচ্চ তাপে নেড়ে চেড়ে নিতে হবে। মাংস কালো হয়ে ভুনা হতে কমপক্ষে ১ ঘণ্টা সময় লাগবে। রান্না হয়ে গেলে ১ টি পেঁয়াজ কুচি এবং ৩ টা আস্ত শুকনো মরিচ ১ কাপ সরিষার তেলে ভেঁজে বেরেস্তা করতে হবে এবং কালা ভুনা মাংসে বাগাড় দিতে হবে।  তৈরি হয়ে গেল চট্টগ্রামের বিখ্যাত গরুর মাংসের কালা ভুনা।

মেজবান মাংস

উপকরণঃ

 ৪ কেজি গরুর মাংস

২ কেজি পেঁয়াজ অর্ধেক কুচি এবং অর্ধেক বাটা

৪০০ গ্রাম আদা রসুন বাটা

৫০ গ্রাম সাদা সরিষা বাটা

৫০ গ্রাম চিনাবাদাম বাটা

২০০ গ্রাম নারকেল বাটা

২ টেবিল চামচ জিরা গুড়া

২ টেবিল চামচ ধনিয়া গুড়া

২ টেবিল চামচ হলুদ গুড়া

১ চা চামচ গোলমরিচ গুড়া

৩ টেবিল চামচ মরিচ গুড়া

৩ টেবিল চামচ টক দই

৮ টি তেজপাতা

৫ টি দারচিনি

৫ টি এলাচ

৫ টি কালো এলাচ

২ টেবিল চামচ জায়ফল ও জয়েত্রিক গুড়া

১৫ গ্রাম রাঁধুনি গুড়া

২ টেবিল চামচ ভাঁজা জিরা গুড়া

১০ টা আস্ত শুকনো মরিচ

৫ টি লবঙ্গ

আধা কেজি সরিষার তেল

৩৫০ গ্রাম ঘি

স্বাদ মত লবণ

প্রণালিঃ

মাংস ধুয়ে ঝরিয়ে নিতে হবে। উপরের সব উপকরন ভালভাবে মাংসের সাথে মাখাতে হবে। এরপর চুলায় একটি পাত্রে মাংস কষাতে হবে।  মাংসের থেকে নিজস্ব পানি বের হলে ৩ লিটার পানি দিয়ে ফুটিয়ে ঢাকনা দিয়ে ঢেকে দিতে হবে। এভাবে কমপক্ষে ২ ঘন্তা মাংস রান্না করতে হবে সিদ্ধ না হওয়া পর্যন্ত।  মাংস সিদ্ধ হয়ে তেলের উপরে উঠে আসলে ১০০ গ্রাম ঘি দিয়ে নামিয়ে ৩ টা আস্ত শুকনো মরিচ দিয়ে পরিবেশন করতে হবে।  তৈরি হয়ে গেল চট্টগ্রামের বিখ্যাত গরুর মাংসের মেজবান।

গরুর চাপ কাবাব

উপকরণঃ

৪০০ গ্রাম গরুর টিবোন নেয়া যেতে পারে

২ টেবিল চামচ আদা রসুন বাটা

১ চা চামচ জিরা গুড়া

১ চা চামচ ধনিয়া গুড়া

১ চা চামচ মরিচ গুড়া

২ টেবিল চামচ টক দই

১/২ কাপ সয়াবিন তেল

১ টেবিল চামচ কাবাব মসলা

স্বাদ মত লবণ

প্রণালিঃ

একটি হামার দিয়ে মাংস টা ছেচে বড় করতে হবে।  তারপর উপরের সব উপকরণ মেখে ৩-৪ ঘণ্টা মেরিনেট করে রাখতে হবে।  তারপর একটি পাত্রে মাঝারি আঁচে মাংসটি ভাঁজতে হবে।  ভালভাবে সিদ্ধ হয়ে ভাজা হয়ে গেলে পরটা অথবা লুচির সঙ্গে পরিবেশন করতে হবে।

গরুর টিকিয়া

উপকরণঃ

৪ কাপ গরুর কিমা মাংস

২৫০ গ্রাম মুগ ডাল

২ টেবিল চামচ আদা রসুন বাটা

১ টেবিল চামচ পেয়াজ বাটা অ কুচি

৩-৪ টুকরা দারচিনি

৮-১০ টি কাচামরিচ কুচি

সয়াবিন তেল প্রয়োজন মতো

১ টেবিল চামচ কাবাব মসলা

২ টি ডিম

স্বাদ মত লবণ

প্রণালিঃ

উপরের সব উপকরণ একসাথে মাংসের কিমার সাথে সিদ্ধ করে নিতে হবে।  পেয়াজ কুচি এবং কাচামরিচ কুচি একসাথে ভেজে নিতে হবে। এরপর বেরেস্তা এবং ফেতান ডিম সিদ্ধ করা কিমার সাথে মাখিয়ে গোল করে টিকিয়া আকারে ডুবো তেলে ভাজতে হবে। 

শিক কাবাব

উপকরনঃ

১ কেজি মাঝারি গরুর মাংস

২ টেবিল চামচ আদা রসুন বাটা

১ চা চামচ জিরা গুড়া

১ চা চামচ ধনিয়া গুড়া

১ চা চামচ গোলমরিচ গুড়া

১ টেবিল চামচ মরিচ গুড়া

১ টেবিল চামচ টক দই

৫ টি এলাচ এবং দারচিনি বাটা

হাফ চা চামচ জায়ফল ও জয়েত্রিক গুড়া

প্রয়োজনমত সয়াবিন তেল

স্বাদমত লবণ

প্রণালিঃ

উপরের সব উপকরণ মাংসের সাথে মেখে ৩-৪ ঘণ্টা মেরিনেট করে রাখতে হবে। তারপর শিকে প্রতিটা মাংস ঢুকিয়ে বারবিকিউ চুলায় কয়লা জালাতে হবে।  এরপর শিকে গাঁথা মাংস কয়লায় ঘুরিয়ে ঘুরিয়ে পুরিয়ে নিতে হবে মাংস সিদ্ধ না হওয়া পর্যন্ত। এরপর নান এর সঙ্গে গরম গরম শিক কাবাব পরিবেশন করতে হবে।

- Advertisement -

আরও লেখা

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

eight − eight =

- Advertisement -

সাম্প্রতিক লেখা