27 C
Dhaka
সোমবার, অক্টোবর ১৮, ২০২১

সরকার নয়, জনগনের মূল শত্রু এদেশের গণমাধ্যম

যা পড়তে পারেন

:: মুজতবা খন্দকার ::

ভারতে সরকারের সমালোচক দুই গণমাধ্যমের একটি ভোপালের ভাস্কর অার অন্যটি হচ্ছে উত্তররপ্রদেশের টিভি চ্যানেল সমাচার।

গণমাধ্যম দুটি করোনা মহামারীর প্রথম থেকে মোদি সরকারের ব্যবস্থাপনা নিয়ে এবং করোনায় মৃত্যুর খবর সরকার গোপন করছে বলে অভিযোগ করে অাসছিলো। মোদির সরকার এতদিন মুখে খুলুপ এঁটে থাকলেও শেষতক,তারা অার পারেনি। কারন দুটো মিডিয়ায় লাগাতার মোদি সরকারের অতিমারি নিয়ে রিপোর্ট করার পর জনমতও সংঘটিত হচ্ছিলো। অার তাই পত্রিকা দুটিকে একটু সমঝে চলতে বৃহস্পতিবার দেশটির অায়কর বিভাগ এক যোগে অভিযান চালায়।

কর ফাঁকি ও আরও কিছু অনিয়মের অভিযোগে এই দুই প্রতিষ্ঠানে কার্যালয়ে গতকাল ভোরে অভিযান চালানো হয়।

দিল্লি, মধ্যপ্রদেশ, রাজস্থান, গুজরাট, মহারাষ্ট্রসহ ভারতজুড়ে দৈনিক ভাস্করের ৩০টি কার্যালয়ে অভিযান চালানো হয়েছে। তবে ভারতের কেন্দ্রীয় সরকারের তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী অনুরাগ ঠাকুর এই অভিযোগ অস্বীকার করেছেন। তিনি বলেছেন, ‘এই অভিযানের সঙ্গে সরকারের কোনো যোগসূত্র নেই। সংস্থাগুলো নিজেদের কাজ করছে। যেমন অামাদের তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী!

দৈনিক ভাস্কর হিন্দি ভাষার পত্রিকা। ভারতে যে পত্রিকাগুলোর সার্কুলেশন বেশি, সেগুলোর মধ্যে অন্যতম এটি। করোনাভাইরাসের মহামারি শুরুর পর সরকারের বিভিন্ন উদ্যোগের ঘাটতি নিয়ে খবর প্রকাশ করছিল দৈনিক ভাস্কর। এর মধ্যে ছিল অক্সিজেন ও হাসপাতালের শয্যা ঘাটতিসহ অনেক খবর। একই ধরনের কাজ করেছিল টিভি চ্যানেল ভারত সমাচার। এ দুই প্রতিষ্ঠানের প্রতিবেদনে বলা হয়েছিল, গঙ্গায় বেশ কিছু মরদেহ ভাসছে। ধারণা করা হচ্ছে, এগুলো করোনাভাইরাস সংক্রমণে মৃত ব্যক্তিদের দেহ।

সম্প্রতি ইসরায়েলি প্রতিষ্ঠান এনএসও গ্রুপের তৈরি আড়িপাতার সফটওয়্যার পেগাসাস নিয়ে প্রতিবেদন প্রকাশ করে তারা ভাস্কর।

অভিযানের পর দুই গণমাধ্যমই বলেছে, সরকারের লক্ষ্যবস্তুতে পরিণত হয়েছে তারা। এ প্রসঙ্গে দৈনিক ভাস্করের সম্পাদক ওম গৌর যুক্তরাষ্ট্রের গণমাধ্যম ওয়াশিংটন পোস্টকে বলেন, ‘আমাদের সাহসী সাংবাদিকতার কারণেই এই অভিযান। আমরা প্রতিবেদন করেছিলাম কীভাবে অক্সিজেনের অভাবে ও হাসপাতালের বিছানায় করোনা রোগী মারা যাচ্ছে।’

এদেশের গণমাধ্যম যতদিন শিড়:দাড়া সোজা করে উঠতে না পারবে,ততদিন এদেশের মানুষের মুক্তি আসবেনা। এখন অবস্থাদৃষ্টে মনে হচ্ছে সরকার নয়, জনগনের মূল শত্রু হচ্ছে এদেশের গণমাধ্যম। যারা সাংবাদিকতা ছেড়ে দিয়ে কেবল সরকারের এক একটি প্রচারমাধ্যমে পরিনত হয়েছে!

২.

অামার অাসা যাক অামাদের দেশে। করোনা ব্যবস্থাপনা নিয়ে অামাদের সরকার কি করছে তা নিয়ে এদেশের গণমাধ্যমের ভূমিকাটা কি?

অামাদের টেলিভিশন কিম্বা পত্রিকাই বলুন.. প্রতিদিন বিকেল কিম্বা সন্ধ্যায় স্বাস্থ্য বিভাগ যেটা বলছে,সেটাই অামাদের গণমাধ্যম প্রচার করছে। তাদের নিজস্ব অনুসন্ধান কোথায়? সরকারের হিসেবটাই কি সব.. অামাদের দেশে করোনায় সরকারের হিসেবের বাইরে কেউ মরছেনা। ভারতের ভাস্কর গঙ্গায় লাশ ভেসে অাসার খবর দিয়ে বলেছিলো, এসব মরদেহ করোনা রোগি। অামাতের বুড়িগঙ্গায় ধরে নিলাম কোনো করোনার লাশ নেই,কিন্তু প্রতিদিন অলিতে গলিতে অক্সিজেনেব অভাবে যারা মরছে.. তারা কারা? সরকার বলছে, করোনা টেষ্ট না করা পর্যন্ত কেউ মারা গেলে তাকে করোনা মৃত্যুর হিসেবে ধরা যাবেনা। কিন্ত গণমাধ্যমের নিজস্ব ফাইন্ডিংস কোথায়.. সরকারী প্রেস নোট প্রচারের জন্য তো বিটিভি অাছে,বেতার অাছে,বাসস অাছে,বেসরকারী টিভি পত্রিকা তাহলে কি জন্য?

অামাদের দেশে অবশ্য গণমাধ্যমের মালিকদের বেশীরভাগই সরকারের হিতাকাংখি। অার সাংবাদিক নেতারা তো প্রণোদনার প্রাপ্ত অর্থের বানরের রুটি ভাগ করার মত সেটা ভাগ করতেই ব্যস্ত.. সুতরাং সরকারের বিরুদ্ধে সত্যিটা বলার নীতি নৈতিকতা অাছে কি এদেশের গণমাধ্যমের?

না হয়,বাদ দিলাম করোনা মহামারীর কথা। এই সরকারেরর যে কোনো লেজিটেমেসি নাই,জনগনের ভোট হরণ করে জোর করে দেশ শাসন করছে,এই সত্য কথাটা বলার মুরোদ কি অাছে এদেশের কোন গণমাধ্যমের? বরং এখন,টিভি, পত্রিকা খুললেই শুধু সরকারের জয়গান ছাড়া কিছু নেই.. এসব মিডিয়ায় জনগনের কথা কোথায়? অথচ নাম রেখেছি গণমাধ্যম! কি চমৎকার প্রহসন!

স্বাস্থ্য খাতে হাজার হাজার কোটি কোটি টাকা লোপাট হয়ে যাচ্ছে। ব্যাংকগুলো সব দেওলিয়া হয়ে যাচ্ছে জনগনের টাকা ব্যাংক থেকে ব্যাংকের পরিচালনা পর্ষদ লোপাট করে নিয়ে যাচ্ছে.. অথচ অামাদের মিডিয়া এক যুগও বেশী অাগে কথিত হাওয়া ভবনের চর্বিতচর্বন প্রচার করছে…প্রহসন অার কাকে বলে!

এদেশের গণমাধ্যম যতদিন শিড়:দাড়া সোজা করে উঠতে না পারবে,ততদিন এদেশের মানুষের মুক্তি অাসবেনা। এখন অবস্থাদৃষ্টে মনে হচ্ছে সরকার নয়, জনগনের মূল শত্রু হচ্ছে এদেশের গণমাধ্যম। যারা সাংবাদিকতা ছেড়ে দিয়ে কেবল সরকারের এক একটি প্রচারমাধ্যমে পরিনত হয়েছে!

- Advertisement -

আরও লেখা

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

2 × 2 =

- Advertisement -

সাম্প্রতিক লেখা